জোনাকির আলোর রহস্য

জোনাকির আলোর রহস্য

🤖#জোনাকির আলোর রহস্য#👾


রাঁতের আঁধারে মিটিমিটি করে জ্বলা জোনাকি পোকা কার না ভালো লাগে? কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন বিদ্যুৎ ছাড়া এই আলো কিভাবে জ্বলে?  আসলে জোনাকি পোকার এই আলো জ্বলার ব্যপারটি একটি কেমিক্যাল রিঅ্যাকশন ছাড়া কিছু না, যা তাদের দেহের অভ্যন্তরে ঘটে।

জোনাকি পোকা তার দেহে এক ধরনের কেমিক্যাল বহন করে যার নাম লুসিফেরিন (Luciferin) । এই লুসিফেরিন এর সাথে অক্সিজেন এর রিঅ্যাকশন হওয়ার ফলেই আলো জ্বলে উঠে। আর দেহের মাঝে এভাবে আলো উৎপন্ন করার প্রক্রিয়াকে বলা হয় বায়োলুমিনেন্স। 

আর কি পরিমান আলো জোনাকি উৎপন্ন করবে তা নির্ভর করে কি পরিমান অক্সিজেন জোনাকি সরবরাহ করবে তার উপর । জোনাকি কম অক্সিজেন সাপ্লাই দিলে কম আলো উৎপন্ন হবে আর বেশী অক্সিজেন সাপ্লাই দিলে বেশী আলো উৎপন্ন হবে।

তবে জোনাকি পোকার আলোতে কোন তাপ উৎপন্ন হয়না। আসলে আমাদের বাতিতে আলোক শক্তি কনভার্ট হয় তড়িত শক্তি থেকে। কিন্তু পুরো তড়িত শক্তির অল্প পরিমানই আলোক শক্তিতে কনভার্ট হয়। বাকীটা তাপশক্তি উৎপন্ন করে। 

কিন্তু খেয়াল করে দেখবেন, জোনাকি পোকার আলোকশক্তি উৎপন্ন হয় রাসায়নিক শক্তি থেকে আর প্রায় পুরো রাসায়নিক শক্তিই আলোক শক্তি তৈরি করে। তাই এক্ষেত্রে তাপ উৎপন্ন হয় না। তাই জোনাকির আলো কে বলা হয় “ঠান্ডা আলো”। এই আলোর খেলা জোনাকির প্রজননে সাহায্য করে । কিছু প্রজাতির পুরুষ জোনাকি রাতের বেলা তার নিজস্ব স্টাইলে আলো জ্বেলে নারী জোনাকিদের প্রলুব্ধ করে থাকে।

ক্রেডিটঃ Mydul Islam Shawon
Previous Post
Next Post

post written by:

0 Comments: