হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ হাজির হয়েছি  Tinker Bell সিরিজের ২য় পর্ব নিয়ে তো চলুন দেরী না করে শুরু করা যাক আজকের মুভি রিভিউ।


মুভিটি সর্ব প্রথম প্রকাশ পায় October 27, 2009ইং সালে যার Director হলো Klay Hall.
মুভিটি তৈরী করতে খরচ হয়েছিলো ৩০ থেকে ৩৫ মিলিয়ন ইউএসডি ডলার।
বক্স অফিস হিট খায় $8,582,265 মিলিয়ন ইউএসডি ডলার তাহলে বুঝতেই পারছেন।
আর Disnep এর মুভির রেটিং নিয়ে ভাবতে হবেনা।
মুভিটির সাইজ 170MB.
মুভিটি যদিও English Language এর তবে আমি Hindi Dubbed শেয়ার করছি।

Tinker Bell Lost Treasure Review:


প্রতি বছরের একটা সময় আসে যখন পরীদের ম্যাজিকাল Pixie Dust Tree এর জন্য Blue Pixie Dust সংগ্রহ করতে হয় এবং তা সম্ভব হয় চাঁদ এবং Moon Stone এর বদৌলতে। প্রতি বছর সেক্টর বানানোর জন্য পরীদের নির্বাচিত করতে হয় যেমন Garden Fairy, Animal Fairy, Light Fairy, Snow Fairy etc থেকে তবে এবার সেই দায়িত্ব পায় Tinker Bell তাকে ডাকা হয় রানীর মহলে এবং Moon Stone ধরিয়ে দিয়ে সেক্টর বানানোর কাজ আরম্ভ করে দিতে বলা হয়।
 এবং তাকে আগে বানানো কিছু সেক্টর দেখানো হয়। যাই হোক রানীর মহলে প্রবেশের আগে ভেবেছিলো সে আজ যা করেছে তা নিয়েই হয়তো সভা শুরু হবে কারন সে নৌকা বানিয়ে চালাতে চালাতে গাছের মাথায় ঊঠে গিয়েছিলো যাই হোক সে কাজে মন দিলো কারন Pixie Dust না থাকলে সকল পরী হারাবে তাদের ম্যাজিকাল পাওয়ার।
Tinker Bell এর কাজে সাহায্য করবে বলে Terence ঠিক করলো এবং যেই ভাবা সেই কাজ সে প্রতিদিন Tinker Bell কে ঘুম থেকে ঊঠানো তার ঘর পরিস্কার রাখা সহ তার দরকারী সব কাজ করার চেষ্টা করছিলো কারন সে তার ভালো বন্ধু হতে চায়।কিন্তু Tinker Bell এটা সহ্য করতে পারছিলোনা তার কাজে অন্য কেউ হস্তক্ষেপ করুক কিন্তু বলতেও পারছিলোনা Terence কে সরাসরি তাই সে বুদ্ধি করে Terence কে ধারালো কিছু আনার জন্য পাঠালো যাতে সে কিছুক্ষন একা একা তার কাজ সম্পূর্ন করতে পারে।
কিন্তু Terence একটি কম্পাস নিয়ে আসে যা Tinker Bell এর সদ্য বানানো সেক্টর টি ভেংগে মুচড়ে দেয় আর তাই Tinker Bell প্রচন্ড রেগে যায় এবং Terence এর সাথে দূর্ব্যবহার করে ভাগিয়ে দেয়। কিন্তু কিছুক্ষন পরে রাগ ঝারার জন্য কম্পাসে লাথি মেরে বসে যার ফলে কম্পাসের ঢাকনা খুলে যায় এবং মহা মূল্যবান Moon Stone ভেংগে যায় যা দেখে Tinker Bell এর ভয়ে কলিজা শুকিয়ে যায়।
Clank এবং Booble এর আগমন ঘটে এবং তারা জানায় যে কিছুক্ষনের মধ্যে পরীদের একটি অনুষ্ঠান শুরু হবে এবং Tinker Bell কে সেখানে যাওয়া উচিৎ। না চাইতেও গেলো এবং Fairy Mairy কে একটু চাল খাটিয়ে জিজ্ঞাসা করে ২টা Moon Stone হলে আরো বেশী কার্যকরী কিছু করা যেত, কিন্তু Fairy Mairy জানায় ৩০০ হাজার বছর ধরে শুধু একটাই Moon Stone রয়েছে যা কিনা Tinker Bell এর কাছে যা শুনে Tinker Bell বেহুশ হওয়ার অবস্থা।
কিছুক্ষনের মধ্যে নাটক শুর হবে এবং Tinker Bell সেই নাটক থেকে জানতে পারলো একটি আয়না রয়েছে যা কিনা তিনটি Wish পূরন করতে সক্ষম কিন্তু এক Pirate দুইটি Wish খরচ করে ফেলেছে আর একটি মাত্র Wish বাকী রয়েছে। তবে সেই আয়না রয়েছে সাত সমুদ্র তেরো নদীর পরে।
Tinker Bell সিদ্ধান্ত নিলো সে সেই আয়না খুজে বের করে Moon Stone ফিরিয়ে আনবে আর সে জন্য অনেক দূর যেতে হবে তাই তার Extra Pixie Dust দরকার কিন্তু সে পেলোনা কারো কাছ থেকে শেষমেশ Terence এর কাছে চায় কিন্তু সেখানেও নিরাশ হয় তবে না থেমে তৈরী করে ফেলে বেলুন আকৃতির কিছু একটা যা তাকে নিয়ে যাবে সেই আয়নার খোজে তবে ২ দিনের ভিতর সেক্টর দিতে হবে এই চিন্তা মাথায় বনবন করে ঘুরছে।
সে রওনা হয়ে গেলো এবং এক সময় তার ক্ষুধা অনুভব হয় এবং সে খাবারের প্যাকেট দেখে খালি হয়ে গিয়েছে সেকি খাবার তো ছিলো দেখা গেলো Bliss (জোনাকী) সব খেয়ে সাবাড় করে ফেলেছে কি আর করা চলে যেতে বললো Bliss কে কিন্তু সে চায় Tinker Bell কে সাহা্য্য করতে যাক অবশেষে Tinker Bell রাজী হয়ে যায় এই ভেবে Bliss অন্ধকারে কাজে আসবে।
এক সময় গল্পে বলা জায়গার মত একটি জায়গা Tinker Bell এর চোখে পড়ে এবং সে বেলুন গাছে বেধে bliss কে পাহারা দিতে বলে নিজে জায়গাটাকে কাছ থেকে দেখতে গেলো। ঐ দিকে ঝড় বেলুন ঊড়িয়ে নিয়ে যায় আর Bliss এসে Tinker Bell কে বোঝাতে চেষ্টা করে যে বেলুন চলিয়া গেছে। খুজতে লাগলো কিন্তু পেলোনা আর নিচে পড়ে অজ্ঞান হয়ে গেলো Tinker Bell.
জ্ঞান ফিরে Bliss কে দেখতে পেলো Tinker Bell এবং বললো যে তার খিদে পেয়েছে তার পক্ষে আর সামনে যাওয়া সম্ভব নয়। Bliss গিয়ে বনের বন্ধু বান্ধব ডেকে নিয়ে আসে যা Tinker Bell কে খাবার এনে মেহমানদারী করে এবং সেই কাংখিত পথে যেতে সাহায্য করে কিন্তু এক গুহায় গিয়ে পড়লো বিপদে।
কারন দুজন পাহাড়ায় আছে এবং তারা Tinker Bell কে ভিতরে প্রবেশ করতে দিবেনা আর দানব গুলো নিজেরাই তর্ক করা আরম্ভ করলো আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে Tinker Bell তাদের পাশ কাটিয়ে সামনে আগালো।
এবং অনেক কিছুরপর সে সেই জাদুর আয়না হাতে পেলো এবং Wish করতে গিয়ে ভুলে Bliss এর উপর রেগে গিয়ে উলটা Wish করে ফেললো যে Bliss এর বাত্তি নিভে যায় এবং তা কার্যকর হয়ে গেলো।
যা তার শেষ ভরসাও গেলো Tinker Bell এবার ভেংগে পড়লো আর Terence কে মনে করলো যে ও পাশে থাকলে সাহায্য করতে পারতো তাকে। আর ঐ দিকে Tinker Bell এর ঘরে গিয়ে Moon Stone এর ভাংগা অংশ দেখতে পেয়ে Terence বুঝতে পারলো Tinker Bell সমস্যায় আছে এবং তার সূত্র ধরে Tinker Bell কে খুজতে বের হয়ে গেলো।
আর Tinker Bell আয়নাতে Terence কে দেখতে পেলো.........।।


এখন দেখার বিষয় হলো Tinker Bell কি পারবে তাদের সেক্টর উপহার দিতে কারন সে Moon Stone ভেংগে ফেলেছে যার ফলে সব পরীর ম্যাজিক শেষ হয়ে যাবে Tinker Bell কি পারবে সব কিছু বাচাতে না নিজেই ভেগে যাবে? আর সে কি পারবে তার ম্যাজিকাল ক্ষমতা ছাড়া ঠিক সময়ে পৌছাতে আর Terence কি সত্যিই Tinker Bell এর কোন সাহায্যে আসতে পারবে? Bliss কি আর কখনো তার পাছায় আলো জালাতে পারবেনা?

এই সব প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে ডাউনলোড করে মুভিটি আপনাকে দেখতে হবে যার লিংক নিচে দেওয়া হলো।

Tinker Bell Lost Treasure Download - Hindi:





তাহলে আপনারা মুভিটি উপভোগ করুন আর কেমন লেগেছে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু ...।

আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স
Share To:

Cyber Prince

Post A Comment:

1 comments so far,Add yours

  1. Vai ami ki jante pari apnar adsense ar daily income koto?

    ReplyDelete