October 2019

যাদের ব্লগ আছে তারা আসলেই একটা বিশেষ বিপাকে পরি।যেটা হচ্ছে আপনার সাইটে ট্রাফিক যায় না।এর জন্য প্রথমে এডসেন্স পাওয়া এবং ভালো র‍্যাংক করাও সম্ভব হয় না।যার কারনে সাইট বানানোর মূল লক্ষ্য ইনকাম হয় না।এতে সময় এবং টাকা সব নষ্ট হয়।
আবার অনেক সাইট এবং অ্যাপ আচগে যারা টাকার বিনিময় ট্রাফিক দেয় যার মূল্য অনেক বেশি।একজন বিগেনার এর পক্ষে সম্ভব না।

এবার আসি আরেক টপিকে।তা হলো আমি আমার আগের wap4dollar হ্যাকের পোস্টে বলেছিলাম আপনার সাইটে ভিজিটর আসলে বা বট দিয়ে ভিজিটর দিলে অটোমে<টিক একটি ক্লিক পরে যাবে প্রতিবার

 পোস্টটি দেখতে ক্লিক করুন

আজকে যেই Traffic bot সেয়ার করব আপনাদের সাথে তা থেকে আপনি চাইলে প্রতি ইচ্ছামত ভিজিটর এবং ইচ্ছামত সময় আপনার সাইটে stay করাতে পারবেন।এতে সাইটের ভিউয়ার টাইম বাড়বে এবং বাউন্স রেইট কমবে।এতে এডসেন্স পেতে সহজ হবে।
সেইসাথে wap4dollar এর হ্যাকেও ব্যবহার করতে পারবেন। 

তাই এখন দেরি না করে নিচে থেকে আপ্পটি ডাউনলোড করুন;

এবার ডাউনলোড শেষে দেখে নিন কিভাবে অ্যাপটি ব্যবহার করে ট্রাফিক নিবেন এবং wap4dollar দিয়ে আনলিমিটেড  ইনকাম করবেন।

$$অ্যাপটি চালু করার পর এমন একটি ইন্টারফেস আসবে।এখানে  ১০-১২ সেকেন্ড  লোড নিবে সকল স্ক্রিপ্ট লোড হবার জন্য।এরপর স্ক্রিপ্ট লোড হয়ে গেলে পরের পেইজে রিডাইরেক্ট হয়ে যাবেন যেখান থেকে আপনি ভিজিটর নিবেন।
   $$নতুন পেইজ লোড হলে নতুন পেইজটি জুম আউট করবেন এবং উপরের ডান দিকে দেখবেন আপনার দরকারি ৪ টি বক্স।
  $$এখানে দেখুন ১ টি বক্সে URL দেওয়ার অপশন রয়েছে এখানে আপনি আপনার সাইট/পেইজের লিংক দিবেন যেখানে ভিজিটর নিবেন।এরপর লিংক বক্সের ঠিক নিচে রয়েছে প্রতি সেকেন্ডে আপনি কত ভিজিটর নিতে চান তার সংখা।এরপর দেখুন লাল একটি বাটন রয়েছে যেখানে আপনি ক্লিক করে ভিজিটর নেওয়া শুরু করতে পারবেন।এরপর লাল বাটনের নিচের বক্সে দেখতে পারবেন আপনি কত ভিজিটরের রিকুয়েস্ট করেছেন এবং কত ভিজিটর সেন্ড হয়েছে।

$$এবার দেখুন আমি আমার প্রুফ দেওয়ার জন্য আমার ব্লগের পোস্টে ভিজিটর নেব।
ভিজিটর নেওয়ার আগের ছবি দেখুনঃ
$$দেখুন এখন তেমন কোনো ভিজিটংং নেই আমার পোস্টে।এবার এই পোস্টের URL নিয়ে আমার Traffic generator এ যেয়ে সেই পোস্টের লিংক দিব
   $$এবার দেখবেন আমার সাইটে কত ভিজিটর পেয়্ব গেছি।
 $$দেখুন যত রিকুয়েষ্ট করেছি তত টা না পেলেও যথেষ্ট পেয়ে গেছি।  অ্যাপ এ যত দেখাবে এর চেয়ে কিছুটা কম পাবেন কারন ২০০+ ভিজিটর যেতে কিছু সময় লাগে আর যেহেতু Analytics সেইফ তাই কম ও ভালো।

অবশ্যই পড়ুনঃ   কোনো কিছুতেই লোভ করা ঠিক না।তাই অল্প করে নিবেন।যেমন ১০০-১৫০ নিবেন ১ বারে।১ বার নেবার ১-২ ঘন্টা পর আবার নিবেন।এতে আপনার  এডসেন্স পাবার আগে Wap4dollar এ ভালো ইনকাম হবে।আর বলে রাখি এডসেন্স পাবার পর ভুলেও আর নিবেন না।কারন গুগল এডসেন্স সবার থেকে বেশি চালাক।এডসেন্স তা ধরে ফেলবে আর সাসপেন্ডও করে দিবে।কিন্তু Wap4dollar তা ধরতে পারে না।

      যেকোনো প্রয়োজনে আমি ফেসবুকে  
স্পুফিং……অনেকেই হয়তো জানেন বিষয়টি কি।তবুও সবার ক্লিয়ার হওয়ার জন্য আমি আবার বলে দিচ্ছি।
Email Spoofing হলো কারো ইমেইল এক্সেস না নিয়ে তার ইমেইল ঠিকানা ব্যবহার করে অন্যকে ইমেইল পাঠানো।যা হ্যাকারদের প্রাথমিক শিক্ষার অংশ।
হ্যা,এখন আপনিও চাইলে ইমেইল স্পুফিং করতে পারবেন। যদিও অ্যাপটি পেইড এবং বিশেষ ক্লাইন্ট ছাড়া কাউকে সরবরাহ করে না তাই সবার হাতের নাগালের বাহিরেই থেকে যায়।কিন্তু আজ আমি একদম ফ্রিতে অ্যাপটি আপনাদের মাঝে সেয়ার করব।
তাই দেরি না করে এখনই অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন।
ডাউনলোড করতে

ক্লিক করুন


তো এবার হয়ে গেল আপনার অ্যাপটি ডাউনলোড করা।এখন আসল কাজে চলে আসি কিভাবে আপনিও ইমেইল স্পুফিংং করবেন।

তার জন্য নিচের স্টেপ গুলো ভালো করে দেখুন।


অ্যাপটি চালু করলেই উপরের মতো স্ক্রিন আসবে এবং সেখানে দেখবেন উপরে লেখা Security step1 এরপর পাবেন লগিন অপশন,এরপর দেওয়া আছে কোথায় পাবেন লগিন করার ইউজার নেইম এবং পাসোয়াড।
লেখা আছে নিচের হলুদ বাটনে ক্লিক করলেই পেয়ে যাব আমার লগিন করার তথ্য।তাই সেখানে ক্লিক করলাম।

নতুন পেইজ চালু হলো এবং সেখানে ইউজার নেইম এবং পাসোয়াড দেখাচ্ছে।এবার ইউজার নেইম,পাসোয়াড কপি করে Home বাটনে ক্লিক করে আগের পেইজে চলে আসলাম এবং লগিন বক্সে তথ্য দিয়ে Login এ ক্লিক করলাম।

লগিন এ ক্লিক করলে আবার সিকিউরিটি এর ২য় পেইজ আসবে।এই পেইজেও সেই প্রথমে কপি করা ইউজার নেইম,পাসোয়াড দিয়ে login করুন।

এবার আসবে ফাইনাল স্টেপ।যেখানে সেই আগের তথ্য দিয়ে আবার লগিন করলেই আমাদের আসল পেইজ চলে আসবে।

এবার দেখুন চলে আসল আমাদের মুল পেইজ।এতক্ষনে যেগুলো পার করে আসলাম তা ছিল মূলত সিকিউরিটি বাড়ানোর জন্য।

এখানে দেখুন ৬ টা বক্স আছে।একদম উপরের বামের বক্সে দিবেন যেই মেইল থেকে মেইল স্পুফিং করতে চান সেই ঠিকানা।যেহেতু আমি ডেমু দেখাচ্ছি তাই আমি ট্রিকবিডি এর সাপোর্ট মেইল ব্যবহার করলাম।ডানের বক্সে দিবেন যার নাম থেকে মেইল পাঠাবেন।এরপর এর বক্সে দিবেন মেইল এর বিষয়।
এরপর বড় বক্সগুলোর বাম দিকের বক্সে দিবেন আপনার মেইলটি।চাইলে আপনি HTML দিয়ে সুন্দর করে লিখতে পারবেন।এরপর ডানের বক্সে দিবেন যার ইমেইল ঠিকানায় আপনি মেইল করবেন তার এড্রেস।
ব্যাস কাজ শেষ।এবার সেন্ড এ ক্লিক করবেন এবং আপনার মেইল চলে যাবে ৫ সেকেন্ডের মধ্যে।
[h1]Proof:[/h1]


দেখলেন তো কত সুন্দর করে ইমেইল স্পুফিং শিখে গেলেন।তাও আবার একদম ফ্রি তে কোনো কম্পিউটার ব্যবহার না করেই।
আমি Mr.মাস্ক এবং ট্রিকবিডি এর সাথেই থাকুন। ইনশাআল্লাহ নতুন এবং দারুন সকল টপিক শিখতে এবং জানতে পারবেন ১০০% প্রুফের সাথে।
মনে রাখবেন আমি কোনো হ্যাকিং বা খারাপ কাজের উদ্দেশ্য এটি সেয়ার করি নাই।শুধু জ্ঞান অর্জন এর জন্য সেয়ার করলাম।কেউ খারাপ কাজে ব্যবহার করবেন না।সাথে কোনো ঝামেলায় জড়িত হলে আমি কোনো ভাবে দায়ী থাকবে না।
আজ এটুকুই আবার আসব আরও নতুন ট্রিক নিয়ে।
আমি ফেইসবুকে
হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি Wikipedia একাউন্ট খোলার টিউটোরিয়াল নিয়ে চলুন শুরু করা যাক।
Wikipedia নিয়ে বলার মত কিছু নেই এক কথায় এই সাইটটিতে পৃথিবীর কম বেশী সকল জিনিস সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন এমন সকল আর্টিকেল নিয়েই এই সাইটটি গঠিত এছাড়াও এর আর্টিকেল গুলো আপনার ভাষায়ও চাইলে আপনি পড়তে পারবেন।

এছাড়াও আপনি যদি চান যে আপনিও একজন লেখক হবেন WIkipedia সাইটের তবে আপনার একটি একাউন্ট থাকা জরুরী।তাহলে আপনি অনেক আর্টিকেল Edit করতে পারবেন সাথে নিজের আর্টিকেল এখানে প্রকাশ করতে পারবেন আছে আপলোডের সুবিধা আরো থাকবে নিজের একটি পেজ ক্রিয়েটের সুবিধা তাহলে আপনি কেন পিছিয়ে থাকবেন করে নিন আপনার জন্য একটি একাউন্ট আজই।

তাহলে প্রথমে চলে যান নিচের লিংকে আর তৈরী করে ফেলুন নিজের একটি একাউন্ট আর সাথে আপনার তথ্য সেখানে দিয়ে অন্যদের জানতে সাহায্য করুন।


এবার আপনার ব্রাউজারে Wikipedia সাইট লোড হয়ে গেলে Create Account এ ক্লিক করুন।
এবার একটি রেজিস্ট্রেশন ফর্ম আসবে এখানে আপনার সম্পূর্ন তথ্য দিয়ে পূরন করুন এবং সবশেষে Captcha পূরন করে Create Your Account এ ক্লিক করুন।
তাহলে হয়ে গেলো আপনার নিজের একটি Wikipedia একাউন্ট।


মোট কথা এই সাথে সব ধরনের তথ্য সংরক্ষন করা হয় তাই আপনি চাইলে আপনার জানা কোন তথ্য অথবা আপনার গ্রাম কিংবা আপনার এলাকা অথবা যে কোন জিনিস সম্পর্কে এখানে তথ্য তুলে ধরুন হয়তো আপনার দেওয়া তথ্য অনেকের কাযে আসবে অথবা আপনার হাত ধরে আপনার গ্রাম কিংবা মহল্লার তথ্য Wikipedia তে জমা হবে।
আজকের পোষ্ট এই পর্যন্তই দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
সৌজন্যেঃ সাইবার প্রিন্স